আফগানিস্তান ছেড়েছেন সেই নারী সাংবাদিক আফগানিস্তান ছেড়েছেন সেই নারী সাংবাদিক

প্রকাশিত: ২:১৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩০, ২০২১ | আপডেট: ২:১৩:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩০, ২০২১
সেই নারী সাংবাদিক

শীর্ষ তালেবান নেতাকে নারী অধিকার নিয়ে প্রশ্ন করা সেই নারী সাংবাদিক বেহেস্তা আরঘান্দ অবশেষে আফগানিস্তান ছেড়েছেন। প্রাণ বাঁচাতে তিনি অন্য দেশে গেছেন বলে দাবি করেছেন। কাতারের সেনাবাহিনীর বিমানে বেহেস্তা সে দেশে যান বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকাসহ একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম।

বেহেস্তার সঙ্গে তার পরিবারও রয়েছে। তবে আগামী দিনে দেশে ফিরতে পারবেন, সেই আশাতেই রয়েছেন তিনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি মাসেই ইতিহাস গড়েছিলেন আফগানিস্তানের এই নারী সাংবাদিক। তালেবানের এক শীর্ষনেতার সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন তিনি। সেই সাক্ষাৎকারে তালেবান শাসনে নারীদের অধিকার কতটা সুরক্ষিত থাকবে তা নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন বেহেস্তা।

সংবাদমাধ্যমকে বেহেস্তা বলেন, তালেবান ওই শীর্ষনেতার সাক্ষাৎকার নেওয়ার দু’দিন পরই মালালা ইউসুফজাইয়ের সাক্ষাৎকার নিই। কিন্তু তার পরে বাকিদের মতো আমিও ভয়ে দেশ ছেড়েছি। আমার পরিচিত বহু সাংবাদিক দেশ ছেড়েছেন। আমাদের সামনে এখন দু’টি সমস্যা। আফগানদের দেশ ছেড়ে বার করে আনা ও সেই সঙ্গে তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই চালানো।

গত ১৭ অগস্ট ওই সাক্ষাৎকার নেন বেহেস্তা। আফগানিস্তানের ইতিহাসে প্রথম বার তালেবানের কোনও মুখপাত্র সংবাদমাধ্যমে হাজির হয়ে সাক্ষাৎকার দেন। একজন নারী সাংবাদিকের ওই সাক্ষাৎকার গোটা বিশ্বে আলোড়ন ফেলেছিল।

ওই সাক্ষাৎকার প্রসঙ্গে বেহেস্তা বলেন, আমি আফগান নারীদের জন্য এই কাজ করেছি। তালেবান নেতাকে আমি বলেছিলাম, আপনারা নারীদের অধিকার দেন না। কিন্তু আমরা আমাদের অধিকার চাই। আমরা কাজ করে যেতে চাই। এটা আমাদের অধিকার।

তিনি বলেন, তালেবান যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা রাখলে হয়তো আগামী দিনে নারীরা কাজের অধিকার পাবে। সে ক্ষেত্রে আমি আবার দেশে ফিরে দেশের মানুষের জন্য কাজ করব

বিজ্ঞাপন
Add Custom Banar 2
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Medical add