কেরোসিন ঢেলে নিজের শরীরে আগুন দিলেন পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী

প্রকাশিত: ১০:১৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২ | আপডেট: ১০:১৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২

মেঘলা নিউজ ডেস্ক:: পটুয়াখালীর দশমিনায় কেরোসিন ঢেলে নিজের শরীরে আগুন দিয়েছেন সুমি আক্তার নামে ৩০ বছর বয়সী এক গৃহবধূ।

মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে দশমিনা থানা সংলগ্ন এএসআই সহিদুল আলমের ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে। সুমির শরীরের ৫০ শতাংশের বেশি পুড়ে গেছে। তিনি এএসআই সহিদুল আলমের স্ত্রী।

বাড়ির মালিক হারুন জানান, তিনতলা ভবনের নিচতলায় স্ত্রী নিয়ে থাকেন দশমিনা থানার এএসআই সহিদুল আলম। দীর্ঘদিন ধরে বাচ্চা না হওয়ায় প্রায়ই দুশ্চিন্তা ও পাগলামি করতেন সুমি। এ নিয়ে অনেক চিকিৎসক ও কবিরাজ দেখিয়েও কোনো লাভ হয়নি। তবে স্ত্রীর প্রতি সন্তুষ্ট ছিলেন সহিদুল। তাদের কোনো কলহ ছিল না।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন সহিদুলের স্ত্রী। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন স্বামী ও থানার পুলিশ সদস্যরা।

দশমিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাক্তার মিঠুন চন্দ্র হাওলাদার বলেন, সুমির অবস্থা আশঙ্কাজনক। আগুনে তার শরীরের ৫০ শতাংশের বেশি পুড়ে গেছে। তাকে রাতেই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে পাঠানো হয়েছে ঢাকায়।

বিষয়টি জানতে দশমিনা থানার এএসআই সহিদুল আলমের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও রিসিভ করেননি তিনি। দশমিনা থানার ওসি (তদন্ত) অনুপ দাস বলেন, এএসআই সহিদুলের স্ত্রী ঢাকায় আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের পারিবারিক কোনো কলহ ছিল না।

বিজ্ঞাপন
Add Custom Banar 2
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Medical add